ঢাকাSunday , 25 February 2024

বশেমুরমবি হাল্ট প্রাইজের ওয়েবিনার অনুষ্ঠিত

হামিম হোসেন রিয়াজ
জানুয়ারি ১, ২০২৪ ৪:৪৬ অপরাহ্ণ । ১৩৭ জন
link Copied

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেরিটাইম বিশ্ববিদ্যালয়ে বশেমুরমবি হাল্ট প্রাইজের প্রথম ওয়েবিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সোমবার এই ওয়েবিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গ্রামীণ ডানোন ফুডস লিমিটেডের ম্যানেজিং ডিরেক্টর দীপেশ নাগ।

বশেমুরমবি হাল্ট প্রাইজের নিউট্রিশন পার্টনার হিসেবে ইতোমধ্যে যুক্ত হয়েছে গ্রামীণ ডানোন ফুডস লিমিটেড, বাংলাদেশ। গ্রামীণ ডানোন মূলত বিশ্বের প্রথম সামাজিক ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান যার প্রতিষ্ঠাকালীন মূল দুইটি উদ্দেশ্য ছিল ; সবার জন্য পুষ্টি নিশ্চিত করা এবং পিছিয়ে থাকা মানুষের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করে দেয়া।

অনুষ্ঠানে দীপেশ নাগ “সোশাল বিজনেস” নিয়ে বিশদ আলোচনা করেন। দেশের মানুষের পুষ্টিহীনতা দূরীকরণের পাশাপাশি গ্রামীণ জনগণের জীবনমান উন্নয়নেও গ্রামীণ ডানোন এর প্রতিষ্ঠাকালীন দিন থেকে অগ্রণী ভূমিকা পালন করে চলছে যা মূলত হাল্ট প্রাইজের মূল উদ্দেশ্যর বাস্তবিক প্রয়োগ।

গ্রামীণ ডানোন বাংলাদেশ “শক্তি+” নামে একটি ব্রান্ডের যাত্রা শুরু করে যা শিশুদের পুষ্টির ঘাটতি পূরণের লক্ষ্য “শক্তি দই ” নামক একটি প্রডাক্ট প্রস্তুত করে।।

গ্রামীণ ডানোন ফুডস লিমিটেডের ম্যানেজিং ডিরেক্টর দীপেশ নাগের ভাষ্যমতে, গ্রামীণ ডানোন প্রতিটি পণ্যর কাচামাল, বিশেষ করে দুধ, দেশের বিভিন্ন প্রান্তের খামারিদের কাছ থেকে যথাযথ খাদ্যমান পরীক্ষা-নিরিক্ষার ভিতর দিয়ে সংগ্রহ করে থাকে। এসব খামারিদের অধিকাংশই হলো নারী অর্থাৎ গ্রামীণ নারীদের স্বাবলম্বী করতেও গ্রামীণ ডানোন কাজ করে চলছে। দীপেশ নাগ গ্রামীণ ডানোনের নানা দাতব্য কাজ সম্পর্কেও বশেমুরমবি হাল্ট প্রাইজের ওয়েবিনারে উল্লেখ করেন।তারা দেশের বিভিন্ন প্রত্যন্ত অঞ্চলের স্কুলগুলোতে শিক্ষার্থীদের মাঝে নিজেদের পণ্য বিতরণের কাজ করে থাকে।

নানা পরিকল্পনা উপস্থাপন ছাড়াও ম্যানেজিং ডিরেক্টর দীপেশ নাগ ওয়েবিনারে উপস্থিত থাকা সকল শিক্ষার্থীদের সামাজিক লাভজনক ব্যবসার মাধ্যমে বৈশ্বিক সমস্যা সমাধানে উৎসাহিত করেন। পাশাপাশি বিভিন্ন পরিস্থিতিতে নিজের অর্জিত অভিজ্ঞতার কথা সবার মাঝে উপস্থাপন করেন যা প্রতিটি শিক্ষার্থীর জন্য অনুসরণযোগ্য।

“নোবেল প্রাইজ ফর স্টুডেন্টস” হিসেবে খ্যাত হাল্ট প্রাইজ একটি আন্তর্জাতিক বিজনেস আইডিয়া উপস্থাপন প্রতিযোগিতা । লাভজনক ব্যবসার মাধ্যমে বৈশ্বিক সমস্যা সমাধানের উদ্দেশ্যে তরুণদের উৎসাহিত করার সবচেয়ে বড় প্রতিযোগিতা এটি । প্রাক্তন ইউ এস প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটন প্রতিবছর একটি চ্যালেঞ্জ নির্ধারণ করেন যা হাল্ট প্রাইজ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে তরুণ প্রজন্মের নতুন নতুন উদ্ভাবনী চিন্তাশক্তির সাহায্যে বিশ্বের এ সামাজিক সমস্যা সমাধানের উদ্দেশ্যে শিক্ষার্থীদের জন্য এ প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। প্রতিবছর বিভিন্ন দেশের শিক্ষার্থীরা নিজ দেশে ও আঞ্চলিক পর্যায়ে বিজয়ী হয়ে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে তাদের ব্যবসায়িক পরিকল্পনা উপস্থাপন করেন এবং বিজয়ী দলকে ১ মিলিয়ন আমেরিকান ডলার পুরস্কার দেয়া হয় যাতে তারা তাদের পরিকল্পনাকে বাস্তবায়িত করতে সফল হয়। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেরিটাইম বিশ্ববিদ্যালয় হাল্ট প্রাইজ কমিটি ক্যাম্পাস ডিরেক্টর খালিদ মাহমুদ বাপ্পির তত্ত্বাবধানে অন ক্যাম্পাস রাউন্ডের কার্যক্রম পরিচালনা করছেন।

এসআর