ঢাকাWednesday , 12 June 2024
আজকের সর্বশেষ সবখবর

বঙ্গবন্ধু মেরিটাইম বিশ্ববিদ্যালয়ে হাল্ট প্রাইজের অন ক্যাম্পাস রেজিষ্ট্রশন শুরু

হামিম হোসেন রিয়াজ
ডিসেম্বর ২১, ২০২৩ ৮:২৪ অপরাহ্ণ । ১৮৫ জন
link Copied

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেরিটাইম বিশ্ববিদ্যালয়ে শুরু হয়েছে হাল্ট প্রাইজ প্রতিযোগিতার অন ক্যাম্পাস রেজিস্ট্রেশন। আগামী ৫ জানুয়ারি, ২০২৪ পর্যন্ত চলবে রেজিস্ট্রেশন।

হাল্ট প্রাইজ বিশ্বের অন্যতম বৃহৎ বিজনেস আইডিয়া উপস্থাপন প্রতিযোগিতা। প্রতিবছর একেকটি নির্দিষ্ট প্রতিপাদ্য বিষয়ের উপর এই প্রতিযোগিতাটি অনুষ্ঠিত হয়। জাতিসংঘের সাথে একত্রিত হয়ে এই প্রতিযোগিতা বৈশ্বিক টেকসই উন্নয়ন নিশ্চিতকরণের লক্ষ্যে কাজ করে। তবে হাল্ট প্রাইজের ১৫ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে এবার কোনো নির্দিষ্ট প্রতিপাদ্যে প্রতিযোগিতাটিকে সীমিত করা হয় নি। ‘আনলিমিটেড’ স্লোগানে এবারের প্রতিপাদ্য হলো ‘আনলিমিটেড’। অর্থাৎ প্রতিযোগীরা যেকোনো বিষয়ে তাদের বিজনেস আইডিয়া উপস্থাপন করতে পারবেন। তবে অবশ্যই তা জাতিসংঘের টেকসই উন্নয়নের লক্ষ্যমাত্রার (এসডিজি) সঙ্গে সম্পর্কিত হতে হবে এবং সামাজিক সমস্যার সমাধানের উদ্দেশ্য থাকতে হবে।

আন্তর্জাতিক এ প্রতিযোগিতাটি মূলত চারটি ধাপে সম্পন্ন হয়ে থাকে। ধাপগুলো যথাক্রমে অন ক্যাম্পাস রাউন্ড, রিজিওনাল সামিট, অ্যাকসিলারেটর এবং গ্লোবাল ফাইনাল নামে পরিচিত। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেরিটাইম বিশ্ববিদ্যালয় হাল্ট প্রাইজ মূলত অন ক্যাম্পাস রাউন্ডেই কাজ করছে। বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এ রাউন্ডের বিজয়ী দল সরাসরি রিজিওনাল সামিটে অংশগ্রহণ করবে।

পার্টিসিপেশন ম্যানেজমেন্ট টিমের প্রধান জানিয়েছেন, সর্ব নিম্ন ৩ জন ও সর্বোচ্চ ৫ জন সদস্য মিলে একটি দল গঠন করা যাবে। দলের শুধু মাত্র একজন সদস্য অন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের হতে পারবে। এক্ষেত্রে বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল বিভাগের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণের সুযোগ রয়েছে। কমিটির প্রধান খালিদ মাহমুদ বাপ্পি বলেছেন, “হাল্ট একটি বিজনেস কম্পিটিশন হলেও এটি কোনো একটি বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য সীমাবদ্ধ নয়, সকল বিভাগের শিক্ষার্থীদের সঠিক সমন্বয়ই পারবে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেরিটাইম বিশ্ববিদ্যালয়কে বিশ্বের দরবারে তুলে ধরতে”।

২টি রাউন্ডের মাধ্যমে অন ক্যাম্পাস রাউন্ড অনুষ্ঠিত হবে বলে আয়োজক কমিটি থেকে জানা গিয়েছে। প্রথমেই বিজনেস আইডিয়াটির মূলভাব কমিটির নিকট প্রেরণ করতে হবে। যা ‘অ্যাবস্ট্রাক্ট সাবমিশন’ নামে পরিচিতি। এ ধাপে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রার সাথে সম্পর্কিত সবচেয়ে সম্ভাবনাময় আইডিয়া গুলো নির্বাচন করা হবে। অতঃপর পরবর্তী ধাপে নির্বাচিত দল গুলো বিচারকদের সামনে তাদের আইডিয়া উপস্থাপনের সুযোগ পাবেন। সেরা দলটিকে বিজ্যী ঘোষণার মাধ্যমে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে তাদের অংশগ্রহণের সুযোগ করে দেওয়া হবে।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেরিটাইম বিশ্ববিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত এই প্রতিযোগিতাটির স্পন্সর হিসেবে থাকছে জয়কলি পাবলিকেশন্স, নিউট্রিশন পার্টনার হিসেবে থাকছে গ্রামীণ ডানোন শক্তি, ই লার্নিং পার্টনার হিসেবে থাকছে লিড একাডেমি ও লার্নিং বাংলাদেশ, রিসোর্স পার্টনার হিসেবে থাকছে স্বরূপ অঙ্গন ও ক্লথিং কালচার, মিডিয়া পার্টনার হিসেবে থাকছে ডেইলি ক্যাম্পাস।এই প্রতিযোগিতার সংবাদ পত্র পার্টনার হিসেবে রয়েছে সময়ের কাগজ।