ঢাকাSaturday , 22 June 2024
  • অন্যান্য

রোজ ডে, শুরু ‘ভালোবাসা সপ্তাহ’৭ থেকে ১৪ ফেব্রুয়ারি

ডা.মুহাম্মাদ মাহতাব হোসাইন মাজেদ
ফেব্রুয়ারি ৬, ২০২৪ ৫:৫৪ অপরাহ্ণ । ১১৮ জন
link Copied

বুধবার (৭ ফেব্রুয়ারি) থেকে শুরু হয়ে যাবে ভ্যালেন্টাইন’স উইক বা ভালোবাসা সপ্তাহ। যা শেষ হবে ১৪ ফেব্রুয়ারি ভালোবাসা দিবস এর মধ্যে দিয়ে।

ভালোবাসা সপ্তাহের এক এক দিনের অর্থ এক একটি। কোনোটি হাগ ডে আবার কোনোটি প্রোপোজ ডে। সব শেষে আসবে ভ্যালেন্টাইন’স ডে। আপনার জানা আছে তো কবে কোন ‘ডে’? জানা না থাকলে প্রিয় মানুষটাকে কীভাবে মনের কথা জানাবেন, কীভাবেই বা উপহার দেবেন? সুতরাং জেনে নিন, ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে ১৪ ফেব্রুয়ারি কবে কোন ‘ডে’।

রোজ ডে- ৭ ফেব্রুয়ারি
গোলাপ ভালোবাসার প্রতীক, তাই ভালোবাসার শুরু গোলাপ দিয়েই। ৭ ফেব্রুয়ারিতে প্রেমীরা একে অপরকে গোলাপ দিয়ে উদযাপন করে। কিছু মানুষ এই দিনে নিজেদের বন্ধুদের গোলাপ উপহার দেয়। আসলে, এটা বিশ্বাস করা হয় যে গোলাপের প্রতিটি রংই আবেগের প্রতীক। লাল রং যেমন ভালোবাসার প্রতীক তেমনি কাউকে ভালোবাসলে তাঁকে লাল গোলাপ উপহার দিয়ে ভালোবাসা প্রকাশ করতে পারেন। হলুদ রংকে বন্ধুত্বের প্রতীক হিসেবে মনে করা হয়। তাই হলুদ গোলাপ উপহার দিয়ে আপনি আপনার বন্ধুত্বের হাত বাড়িয়ে দিতে পারেন। একই সময়ে, সাদা রং শান্তির প্রতীক। অর্থাৎ, আপনি যদি কারও সঙ্গে আপনার সম্পর্ক উন্নত করতে চান তাহলে তাঁকে সাদা গোলাপ উপহার দিতে পারেন।কেননা গোলাপ ফুলের প্রতিটা রঙের অর্থ কিন্তু আলাদা। এ বছর গোলাপ দিবস পড়েছে বুধবারে ।ভালোবাসার সাথে মিশে থাকে অনুভূতি। যা বর্ণহীন এক জল। কলসির কানায় কানায় পূর্ণ হওয়া এক স্পন্দন। এই স্পন্দনের নেই কোনো আকৃতি। ভালোবাসা শব্দের মাধ্যমে প্রকাশ করা যায় না। এর জন্য চোখ, কান খোলা রাখাই যথেষ্ট। ভালোবাসার কোনো রং নেই তার মানে এই না ভালোবাসা সাদাকালো। ভালোবাসা বর্ণহীন হলেও প্রকাশ করার ভঙ্গি হওয়া চাই রঙিন। কেননা ভালোবাসা প্রকাশের মাধ্যমই মূলত ভালোবাসার রং। আর এই ভালোবাসার মাধ্যম যদি হয় ফুল তাহলে তো কোনো কথাই নেই। ভালোবাসা প্রকাশের জনপ্রিয় একটি মাধ্যম গোলাপ। যা সেই আদিকাল থেকে প্রচলিত হয়ে আসছে। আর এই ভালোবাসার মাধ্যমের গুরুত্ব বোঝাতে পালিত হয় রোজ ডে। ১৪ই ফেব্রুয়ারি বিশ্ব ভালোবাসা দিবসকে উপেক্ষা করে ৭ ফেব্রুয়ারি ‘রোজ ডে’ পালিত হয়। এই দিনে পছন্দের মানুষকে ভালোবেসে গোলাপ দেয়। তবে গোলাপ দেয়ার আগে যেনে নিন কোন রঙের গোলাপ কী অর্থ বোঝায়। তা না হলে পড়তে পারেন বিপদে।

জেনে নিন রং ভেদে গোলাপের অর্থ-

লাল গোলাপ
বলা হয়ে থাকে লাল গোলাপ ভালোবাসার প্রতীক আর তাইতো যুগে যুগে কবি সাহিত্যিকগণ ভালোবাসা প্রদানে লাল গোলাপকে প্রাধান্য দিয়ে আসছে। প্রেমের ধরন বদলে গেলেও প্রেম নিবেদনের উপকরণ লাল গোলাপের প্রচলন বদলে যায়নি।

গোলাপি গোলাপ
ভালোবাসা, কৃতজ্ঞতা ও স্বীকৃতির প্রতীক গোলাপি গোলাপ। কাউকে ধন্যবাদ দিতে গোলাপি গোলাপ দিতে পারেন। লাল গোলাপের পাশাপাশি গোলাপি গোলাপ মনের ভাষা বোঝায়।

সাদা গোলাপ
ভুল করেও কখনো প্রেম নিবেদনের ক্ষেত্রে সাদা গোলাপ দিবেন না। ভালোবাসা প্রকাশে নয় বরং শোকজ্ঞাপনে সাদা গোলাপ ব্যবহার করা হয়। সাদা গোলাপ শান্তির প্রতিক। নতুন জীবন শুরুর আগে কনের হাতে সাদা গোলাপ দেয়া হয়। কারণ সাদা গোলাপ জীবন শুরুর প্রতীক অর্থ বোঝায়। তবে মৃতহেদ, কবরের ওপর সাদা গোলাপ রাখার অর্থ তাকে মিস করা। কাউকে মিস করলে সাদা গোলাপ প্রদানের মাধ্যমে মনের ভাব বোঝাতে পারেন।

কমলা গোলাপ
উৎসাহ, উদ্দীপনা ও আবেগর প্রতীক কমলা গোলাপ। এ গোলাপ উপহার দিয়ে বোঝাতে পারেন আপনি পাশে আছেন। কমলা গোলাপ সহযোদ্ধাকে উদ্বুদ্ধ করতে ব্যবহার করা হয়।

হলুদ গোলাপ
হলুদ গোলাপের মানে বন্ধুত্ব, দৃঢ় সম্পর্ক ও বন্ধন। বন্ধুত্বের প্রতীক হলুদ গোলাপ। এ গোলাপ দিয়ে আনন্দ, সুস্বাস্থ্য বোঝানো হয়।

বেগুনী গোলাপ
র‌য়্যালিটির প্রতীক বেগুনি গোলাপ। আর তাইতো রানিকে সম্মান জানাতে দেওয়া হয় বেগুনি গোলাপ। কিন্তু এই গোলাপ সব সময় পাবেন তার নিশ্চয়তা নেই।

পিচ গোলাপ
বিরল রংয়ের গোলাপ পিচ গোলাপ। সততা, আন্তরিকতা ও সহমর্মিতা বোঝানোর জন্য পিচ গোলাপ দেয়া হয়।

কালো গোলাপ
কালো গোলাপের অস্তিত্ব নিয়ে আনেক বিতর্ক থাকলেও এ গোলাপের প্রচলিত হয়ে আসছে। কালো গোলাপ মৃত্যুর প্রতীক। কালো রঙের গোলাপ মৃত্যু বা শোকের বার্তাবাহক। তাই এই গোলাপ দেয়ার আগে অবশ্যই ভেবে নিবেন।

নীল গোলাপ
নীল রঙের গোলাপ রহস্য বোঝায়। সঙ্গে নীল গোলাপকে বলা হযে থাকে দুর্বোধ্যতার প্রতীক।

সবুজ গোলাপ
শান্ত ও ফলপ্রসূতা বোঝাতে সবুজ গোলাপ দিতে পারেন। এ গোলাপ ভাগ্যের প্রতীক।
প্রোপোজ ডে- ৮ ফেব্রুয়ারি

নাম দেখেই বোঝা যাচ্ছে ভালোবাসা সপ্তাহের দ্বিতীয় দিনটি হলো, প্রস্তাব দেওয়ার দিন। এটি ভালোবাসা সপ্তাহের সবচেয়ে রোমান্টিক দিন। এদিন প্রেমিক-প্রেমিকারা নিজেদের ভালোবাসার প্রকাশ করেন একে অপরের সামনে। প্রোপোজ ডে-তে ভালোবাসার মানুষের সামনে নিজের মনের লুকানো কথাটা জানিয়ে দিন। এ বছর প্রপোজ ডে বুধবারে।

চকলেট ডে- ৯ ফেব্রুয়ারি
চকলেট দিবস ভালোবাসার সপ্তাহের তৃতীয় দিন। এই দিনটি সম্পর্কের বন্ধনকে ঠিক চকলেটের মতোই মিষ্টি করে তোলে। কেবল প্রেমিক-প্রেমিকারা একে অপরকে নয়, চকোলেট ডে-তে যেকেউ তার প্রিয় মানুষকে চকলেট উপহার দিতে পারেন।

টেডি ডে- ১০ ফেব্রুয়ারি
এই বিশেষ দিনে পছন্দের মানুষকে টেডি বিয়ার উপহার দিতে পারেন। ছোট বড় নানা মাপের টেডি বিয়ার পাওয়া যায় বাজারে। পছন্দমতো কিনে নিন আর উপহার দিন। এ বছর টেডি ডে শুক্রবারে পড়েছে।

প্রমিজ ডে- ১১ ফেব্রুয়ারি
ভালোবাসার সপ্তাহের পঞ্চম দিন হলো প্রমিজ বা প্রতিশ্রুতি দিবস। যেকোনো সম্পর্কে সঙ্গীদের একে অপরের কাছে কিছু জিনিসের অঙ্গীকারবদ্ধ থাকা খুবই জরুরি। এই বিশেষ দিনে আপনিও আপনার সঙ্গীর কাছে কিছু প্রমিজ করতে পারেন। তাতে সম্পর্ক আরও মজবুত হবে।

হাগ ডে- ১২ ফেব্রুয়ারি
এ দিনে আপনার প্রিয়জনকে একটি কোমল আলিঙ্গন দিন, তাকে চিরকালের জন্য যে ভালোবাসেন তা জানান তাকে। তবে অবশ্যই তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে গিয়ে নয়। এ বছর এই দিনটি রোববারে।

কিস ডে- ১৩ ফেব্রুয়ারি
ভালোবাসার সপ্তাহের সপ্তম দিনটি চুম্বন দিবস হিসাবে পালিত হয়। জড়িয়ে ধরার মতোই ভালোবাসা প্রকাশের আরেক ধরন চুম্বনও বটে। এবারে এই দিনটি মঙ্গলবার পড়েছে।

ভ্যালেন্টাইন’স ডে- ১৪ ফেব্রুয়ারি
ভ্যালেন্টাইন’স সপ্তাহের শেষ দিন হলো, বহুল প্রতীক্ষিত ১৪ ফেব্রুয়ারি। ভালোবাসা দিবস হিসেবে পালন করা হয় এই দিনটিকে। এ বছর ভ্যালেন্টাইন’স ডে বুধবারে ।

পরিশেষে বলতে চাই, প্রতিবছর এই দিনে ফুলের দোকানগুলোতে ভিড় লক্ষ্য করা যায়। বিশেষ করে রাজধানীর শাহবাগ সহ বাংলাদেশের প্রতিটি ফুলের দোকানগুলোতে প্রিয়জনের জন্য ফুল নিতে আসা মানুষের ভিড় রীতিমত চোখে পড়ার মতোই হয়। এই দোকানগুলো থেকে গোলাপ কিনে প্রেমিক তার প্রেমিকাকে উপহার দেয়। শাহবাগ ও তার আশেপাশের এলাকা সহ দেশের প্রায় সব বেড়ানোর জায়গাতেই এদিন গোলাপ হাতে কিংবা প্রেয়সীর চুলের খোপায় শোভা পায় গোলাপ।

রোজ ডে’র ইতিহাস ঘেটে জানা যায়, এই দিবসটির নামকরণ করেছেন রানি আলেকজান্দ্রা। তার ৫০তম বিবাহবার্ষিকীতে লন্ডনে এলে সেখানকার অধিবাসীরা হাজার হাজার গোলাপ দিয়ে তাকে অভ্যর্থনা জানায়। এতো গোলাপ দেখে তিনি অবাক হয়ে যান। তখনই তিনি সিদ্ধান্ত নেন গোলাপ বিক্রি করে সেই টাকা দিয়ে দরিদ্র, অসুস্থ মানুষের জন্য সেবা ও ভালোবাসার হাত বাড়িয়ে দেবেন। এভাবেই গোলাপ দিয়ে মানুষের মুখে হাসি ফোটাতে পালন হয় ‘রোজ ডে’। সেখান থেকেই প্রিয়জনকে খুশি করতে গোলাপ দেওয়ার প্রচলন হয়।

লেখক, কলাম লেখক ও গবেষক
প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান, জাতীয় রোগী কল্যাণ সোসাইটি
ইমেইল, drmazed96@gmail.com