ঢাকাSaturday , 2 March 2024
  • অন্যান্য

আসন ভাগাভাগির নির্বাচন গণতন্ত্রের জন্য অশনিসংকেত

আবদুর রহিম
ডিসেম্বর ৭, ২০২৩ ৪:২৫ অপরাহ্ণ । ১৩৩ জন
link Copied

২০২৪ সালের সাত জানুয়ারি বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন। তত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নিরপেক্ষ নির্বাচন প্রশ্নে বাংলাদেশের রাজনৈতিক দলগুলো ইতিমধ্যেই দুই শিবিরে বিভক্ত হয়ে পড়েছে। নির্বাচন কমিশনের তথ্যমতে নিবন্ধিত ৪৪টি রাজনৈতিক দলের মধ্যে ইতিমধ্যে ৩০টি রাজনৈতিক দল নির্বাচনে অংশগ্রহণ করলেও নিবন্ধিত ১৪টি রাজনৈতিক দল নিরপেক্ষ নির্বাচনের দাবীতে নির্বাচন বয়কট করার ঘোষণা দিয়ে সারাদেশে হরতাল ও অবরোধের মত কর্মসূচী পালন করছে। ফলে সারাদেশে নির্বাচনী উৎসবের মাঝে জনগণের মধ্যে এক ধরনের ভীতি কাজ করছে যা সুষ্ঠু গণতন্ত্রের জন্য কাম্য নহে।

বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনে নিবন্ধিত ও অনিবন্ধিত দলের সংখ্যা শতের ঘরে হলেও মূলত স্বাধীনতার ৫০ বছরে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ও বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল( বিএনপি) ই অধিকাংশ সময় রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় থেকে রাষ্ট্র পরিচালনা করেছে এবং এবং এই দুইটি দলই মূলত বাংলাদেশের বৃহত্তম রাজনৈতিক দল। তাদের রয়েছে তৃনমুল পর্ষন্ত জনসমর্থন। মূলত এই দুটি দলের অংশগ্রহণের ফলেই বাংলাদেশের জনগণ নির্বাচনী ভোট উৎসবে মেতে উঠে যা গণতন্ত্রের সৌন্দর্যকে বাড়িয়ে বিশ্বে বাংলাদেশকে গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রের মর্যাদাকে তুলে ধরে।

কিন্তু পরিতাপের বিষয়, নিরপেক্ষ নির্বাচন প্রশ্নে বিগত বেশ কয়েকটি জাতীয় সংসদ নির্বাচনের মত আগামী দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনও বৃহৎ রাজনৈতিক দলগুলোর অংশগ্রহণ ছাড়া অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

বর্তমান একাদশ জাতীয় সংসদে প্রতিনিধিত্বকারী দলগুলো জোট ভিত্তিক কিংবা ক্ষমতাসীনদের সাথে সমঝোতায় গিয়ে আসন ভাগাভাগির নির্বাচনে মেতে উঠেছে যা গণতন্ত্রের জন্য অশনিসংকেত। শক্তিশালী বিরোধী দল হচ্ছে গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রে ছায়া সরকারের মত। কিন্তু আসন ভাগাভাগির লেজুড়বৃত্তি বিরোধী দল হচ্ছে স্বৈরশাসকের উৎপত্তিস্থল। তাছাড়া ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য আসন ভাগাভাগি করে জনগণের হাজার কোটি টাকা খরচ নির্বাচনের কিবা প্রয়োজন?

সুতরাং, দেশে বিদেশে নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ না করে, আসন ভাগাভাগির অনৈতিক ও অগণতান্ত্রিক পন্থা থেকে বের হয়ে বাংলাদেশের সবদলের অংশগ্রহণে জাতীয় সংসদ নির্বাচনের জন্য সবাইকে একসাথে বসে নিজেদের সমস্যা নিজেদেরই খুঁজতে হবে। সব ধরনের জ্বালাপোড়াও, অগ্নিসংযোগ, অবরোধ, হরতাল পরিত্যাগ করে সুষ্ঠু, সুন্দর ও গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র ব্যবস্থা কায়েমের জন্য বিজয়ের এই মাসে সোনার বাংলাদেশ গড়ার দৃপ্ত শপথ নেওয়ার জন্য বাংলাদেশের গণতন্ত্রকামী সকল রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দের কাছে উদাত্ত আহবান জানাচ্ছি।

লেখক ও সাংবাদিক
আবদুর রহিম
rahimmalekctg@gmail.