ঢাকাSunday , 25 February 2024

ভাড়া নেওয়া অটোরিকশা বিক্রি টাকা ভাগাভাগির দ্বন্দে খুন হন শামীম

মোঃ জাকির হোসেন
জানুয়ারি ২২, ২০২৪ ৪:২০ অপরাহ্ণ । ৪০ জন
link Copied

রাকিবুল (২৩) ও শামীম (১৬) দুজন মিলে ভাড়া নেওয়া অটো গাড়িটি বিক্রি করে। অটোরিকশা বিক্রির টাকা রাকিবুল কে বন্টনে কম দিলে ক্রোধের পার্শবর্তী হয়ে পরিকল্পিতভাবে শামীমকে হত্যা করে রাকিবুল। এমনই ঘটনা ঘটেছে ময়মনসিংহের মুক্তাগাছা উপজেলা। হত্যাকারী রাকিবুল মুক্তাগাছা উপজেলার তারাটি চরপাড়ায় এলাকার শফিকুল ইসলামের ছেলে। আর ভিকটিম একই এলাকার প্রতিবেশী সিরাজ মিয়ার ছেলে শামীম মিয়া। শামীম পেশায় একজন অটোচালক ছিল।

রোববার (২১জানুয়ারি) দুপুরে জেলা পুলিশ সুপারের কার্যালয় এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছেন জেলা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ শামীম আহমেদ।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জানান, আসামি মোঃ রাকিবুল ইসলাম পেশায় একজন ভ্যানচালক। বিগত কয়েকদিন যাবত তার কিছু অর্থের বিশেষ প্রয়োজন ছিল। গত প্রায় দুই মাস আগে সে একটি এনজিও থেকে ২ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা লোন নিয়েছে যা প্রতি সপ্তাহে ৩ হাজার টাকা কিস্তিতে পরিশোধ করে আসছে। ঋণগ্রস্থ অবস্থায় আসামী কিস্তির টাকা পরিশোধে অপারগ হয়ে গত ১৮ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার সকালে প্রতিবেশী অটোচালক ভিকটিম শামীমের সাথে ভাড়া নেওয়া অটো গাড়ীটি বিক্রি করবে মর্মে পরামর্শ করে। সেই মোতাবেক গত ১৯ জানুয়ারি বিকাল অনুমান ২টায় মুক্তাগাছা থানা এলাকার ফকিরগঞ্জ বাজার থেকে রাকিবুল এবং শামীম ভাড়ায় চালিত অটো-রিক্সা নিয়ে অনেকক্ষণ বিভিন্ন জায়গায় যত্রতত্র ঘোরাঘুরি করে একসময় জামালপুর জেলার সদর থানাধীন নরুন্দি বাজারে যায়। সেখানে বিকাল সাড়ে ৫টায় তারা অজ্ঞাত একজন ব্যক্তির কাছে গাড়িটি ১০ হাজার টাকায় বিক্রি করে। ভিকটিম শামীম এই টাকা হস্তগত করে আসামী রাকিবুলকে মাত্র ২ হাজার টাকা দিলে আসামী ক্রোধের বশবর্তী হয়ে ভিকটিমকে হত্যার পরিকল্পনা করে। পরবর্তীতে সে ভিকটিম শামীমকে কৌশলে ডেকে নিয়ে ঘটনাস্থল মুক্তাগাছা থানার বিরাশি গ্রামের একটি নির্জন জায়গায় যায়। এরপর সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় ভিকটিম শামীমের পরিহিত জ্যাকেটের ফিতা টান দিয়ে খুলে তার গলায় পেঁচিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে এবং তারাটি ইউনিয়নে মাদ্রাসার পিছনে ফেলে রেখে চলে যায়। ২০শে জানুয়ারি সকাল সাড়ে ৯টায় ৯৯৯ থেকে কল পেয়ে মুক্তাগাছা থানা পুলিশ এবং জেলা গোয়েন্দা শাখা পুলিশের চক্ষুষ দল দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ শনাক্ত করে। পরে ওইদিনই নিহতের বাবা মো. সিরাজ মিয়া বাদী হয়ে অজ্ঞতাদের আসামি করে এই মামলা দায়ের করলে ঘটনার তদন্ত শুরু করে ডিবি পুলিশ।

হত্যার ২৪ ঘন্টার মধ্যে হত্যাকাণ্ডের সাথে সরাসরি জড়িত মূল পরিকল্পনাকারীকে নিজ এলাকা থেকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আরো জানান, আসামী রাকিবুল ইসলামকে বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করার প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে।