ঢাকাSaturday , 13 April 2024

সঞ্চয়পত্রের কোটি টাকা মেরে উধাও পোস্ট মাস্টার

নিজস্ব প্রতিবেদক
মার্চ ১৯, ২০২৪ ৬:৫২ অপরাহ্ণ । ৩৩ জন
link Copied

রাজশাহীর তানোরে গ্রাহকের সঞ্চয়পত্রের প্রায় কোটি টাকা আত্মসাৎ করে পালিয়েছেন পোস্ট মাস্টার মুখছেদ আলী। তানোর পৌরশহরের কুঠিপাড়াস্থ উপজেলা পোস্ট অফিসে এ ঘটনা ঘটেছে।

২০ দিন আগে বিষয়টি নজরে আসে ডাক বিভাগের। এরপরই বিষয়টি গ্রাহকদের নজরে আনেন তাঁরা। প্রায় ৩০ জন গ্রাহকের প্রায় কোটি টাকা হাতিয়ে নেওয়ার ঘটনায় তাঁকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। ওই পোস্ট মাস্টারের বিরুদ্ধে তানোর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরিও করেছে ডাক কর্তৃপক্ষ।

রাজশাহীর ডেপুটি পোস্ট মাস্টার জেনারেল (তদন্ত) মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, পোস্ট মাস্টার মুখছেদ আলী কৌশলে গ্রাহকদের স্বাক্ষর নিয়ে নিজে টাকা তুলে নিয়েছেন বলে জানা যাচ্ছে। এ ঘটনায় তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটিও গঠন করেছে ডাক বিভাগ। তদন্ত কমিটি প্রাথমিকভাবে ঘটনার সত্যতা পেয়েছে বলে জানা গেছে।

মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান আরও বলেন, মুখছেদ আলীর বিরুদ্ধে বহু গ্রাহকের লাখ লাখ টাকা সঞ্চয়পত্র তুলে নেওয়ার অভিযোগ পাওয়া যায়। আমরা তদন্ত কমিটি সরেজমিনে প্রাথমিকভাবে সেটির প্রমাণ পেয়েছি। এরপর মাইকিং করা হয় আশপাশের গ্রামে গ্রামে। এটি জানার পর মানুষ কাগজপত্র নিয়ে অফিসে আসছে। এসব কাগজপত্রে পেমেন্ট সম্পন্ন অবস্থায় পাওয়া যাচ্ছে। বাস্তবে গ্রাহক কোনো টাকা পাননি। আমরা এখন পর্যন্ত প্রায় ৩০ জনের গ্রাহকের অর্ধ কোটির বেশি টাকা আত্মসাতের বিষয়ে জানতে পেরেছি।

এই ঘটনায় পোস্ট মাস্টার মুখছেদ আলীর বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে উল্লেখ করে মনিরুজ্জামান বলেন, তাঁকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। তবে তাঁকে এখানে থাকতে বলা হয়েছিল। কিন্তু দুঃখের বিষয় তিনি গত সোমবার থেকে অফিসে আসেননি। আমরা থানায় একটি জিডি করেছি। যেহেতু তিনি সরকারি কর্মচারী, তার বিরুদ্ধে সরাসরি মামলা করা যায় না। তাই দুদকে অভিযোগ দেয়া হয়েছে। সেখানেই তাঁর বিরুদ্ধে মামলা করা হবে।

ভুক্তভোগী উপজেলার কুঠিপাড়া এলাকার আব্দুর রাকিব বলেন, আমি সবশেষ যখন টাকা জমা দেই, তখন আমার জমার বইয়ের একটি জায়গায় সই করতে বলেন পোস্ট মাস্টার মুখছেদ আলী। আমি তাঁর দেখানো জায়গায় সই করে বাড়ি চলে যাই। গত মাসে আমি টাকা তোলার জন্য গিয়ে জানতে পারি যে, আমার হিসাবে টাকা নাই।

ভুক্তভোগী রিক্তা, জয়নাল আবেদীন, কাওছার আহমেদসহ আরও অনেকে অভিযোগ করে বলেন, তাঁদের একেকজনের কাছ থেকে ২ লাখ, ৫ লাখ, ১২ লাখ করে টাকা নিয়ে উপজেলা পোস্ট মাস্টার মুখছেদ আলী উধাও হয়েছেন।

এ নিয়ে পোস্ট মাস্টার জেনারেলের কার্যালয় উত্তরাঞ্চল রাজশাহীর পোস্ট মাস্টার জেনারেল কাজী আসাদুল ইসলাম বলেন, আমি শুনেছি এক পোস্ট মাস্টার গ্রাহকের টাকা তুলে নিয়েছেন। আমরা তাঁকে সাময়িক বরখাস্ত করেছি। এই ঘটনায় দুদকে অভিযোগ দেওয়া হয়েছে। গ্রাহকের অর্থ ফেরত দেওয়ার জন্যও আমরা চেষ্টা করব।

বিষয়টি নিয়ে দুদক রাজশাহী জেলা কার্যালয়ের উপ–পরিচালক মনিরুজ্জামান বলেন, আমাদের মৌখিকভাবে ডাক বিভাগ থেকে ঘটনাটি জানানো হয়েছে। তবে অভিযোগের কপি এখনো পৌঁছায়নি। অভিযোগ পেলে সেটি আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আর তানোর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোস্তাফিজুর রহমান ফোনে বলেন, বিষয়টি আমি শুনেছি। তবে এই ঘটনায় কেউ আমার দপ্তরে অভিযোগ করেননি। এরপরও আমরা বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে দেখছি।

অভিযুক্ত পোস্ট মাস্টার মুখছেদ আলীর বক্তব্য জানতে তার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি সাড়া দেননি।

আরএফ/এসআর