ঢাকাSaturday , 13 April 2024

পিরোজপুর জেলা আইনজীবী সমিতির সভায় দুর্বৃত্তদের হামলা : আহত ৫

মোঃ নুর উদ্দিন
ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০২৪ ১১:২৪ পূর্বাহ্ণ । ৩৯ জন
link Copied

পিরোজপুর জেলা আইনজীবী সমিতির দুই গ্রুপের মধ্যে দ্বন্দ্বে তলবি সভা, মুলতবী সভা এবং এডহক কমিটি গঠনকে কেন্দ্র করে দুর্বৃত্তদের হামলায় পিপি, জিপিসহ ৫জন আইনজীবী আহত হয়েছেন।

বৃহস্পতিবার দুপুরে সভা চলাকালীন বহিরাগত সন্ত্রাসীরা হামলা চালিয়ে সরকারী কৌশলী (জিপি) এডভোকেট প্রমানন্দ হালদার, এডভোকেট তরুন ভট্টাচার্য ও আহাসানুল কবির হিমুকে আহত করে। আহতদের উদ্ধার করে তরুন জেলা হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। এরপরই তলবি সভা পন্ড হয়ে যায়। পরবর্তীতের আহতদের দেখতে যাওয়ার পথে আরও দুই আইনজীবী এডভোকেট আব্দুর রাজ্জাক খান বাদশা ও সাইদুর রহমান টিটু’র ওপর হামলা করে তাদের মারধর করে সন্ত্রাসীরা।

এদিকে, আইনজবীবী সমিতির দুই গ্রুপ পাল্টাপাল্টি দুটি এডহক কমিটি গঠন করেছে।

আইনজীবীরা জানান, পিরোজপুর জেলা আইনজীবী সমিতির কার্যনির্বাহী কমিটির মেয়াদ শেষ হওয়ায় সমিতির সাধারণ সদস্যরা একটি এডহক কমিটি গঠনের লক্ষে বৃহস্পতিবার তলবি সভার আহবান করে। অন্যদিকে, মেয়াদোত্তীর্ন কমিটির সভাপতিসহ একটি অংশ মুলতবী সভা দেখিয়ে একই স্থানে সভা আহবান করে। উক্ত সভায় কয়েকজন আইনজীবীর বক্তব্যকে কেন্দ্র করে হট্টগোল শুরু হলে সভা চলকালীন সময়ে কতিপয় আইনজীবীর প্রশ্রয়ে বহিরাগত দুর্বৃত্তরা সভাস্থলে প্রবেশ করে। এসময় তারা সরকারী কৌশলী (জিপি) এডভোকেট প্রমানন্দ হালদার, এডভোকেট তরুন ভট্টাচার্য ও আহাসানুল কবির হিমু মারধর করে। এ ঘটনার পর তলবি সভা স্থগিত করে আহতদের হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

তলবি সভা স্থগিত করে আহতদের দেখতে জেলা হাসপাতালের দিকে রিক্সায় করে রওয়ানা হয় সিনিয়র আইনজীবী ও বিশেষ পিপি (নারী ও শিশু) এডভোকেট আব্দুর রাজ্জাক খান বাদশা ও সাইদুর রহমান টিটু। তারা ফায়ার সার্ভিসের সামনে পৌঁছালে ৮/১০ জনের সন্ত্রাসী লোহার রড, জিআই পাইপ, ধারালো দাও নিয়ে তাদের উপর হামলা করে। সন্ত্রাসীরা তাদের শরীরের বিভিন্ন স্থানে এলোপাথারি পিটিয়ে আহত করে পালিয়ে যায়। তারা এডভোকেট সাইদুর রহমান টিটুর দুই পা রড ও জিআই পাইপ দিয়ে থেতলে দেয়। তাকে পিরোজপুর জেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পিরোজপুর জেলা হাসপাতালের দায়িত্বরত চিকিৎসক ডাক্তার আসিফ আহমেদ বলেন, আহত সাইদুর রহমান টিটুর দুই পা গুরুতর জখম হয়েছে। শরীরেও কিছু অংশে আঘাতের চিহ্ন আছে। অবস্থা খারপের দিকে যেতে পারে। অবস্থা খারাপ হলে আমরা উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল অথবা খুলনায় স্থানান্তর করবো।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন গুরুতর আহত সাইদুর রহমান টিটু বলেন, আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি এডভোকেট আলাউদ্দিন খান ও এডভোকেট শহিদুল হক খান পান্নার নির্দেশে শংকরপাশা ইউনিয়নের আলাউদ্দিন হাওলাদার ও আইনজীবী সহকারি হুমায়ূন কবিরসহ ৮/১০ জন তাদের ওপর হামলা করে।

অভিযোগের বিষয়ে সমিতির মেয়াদোত্তীর্ন কমিটির সভাপতি এডভোকেট খান মো. আলাউদ্দিন বলেন, মুলতবী সভা চলাকালে কতিপর আইনজীবী উষ্কানীমূলক বক্তব্য দিলে সভায় একটু হট্টগোল দেখা দেয়। এ সময় তলবী সভা আহবানকারী কিছু আইনজীবী সভাস্থল থেকে বাইরে বের হয়ে যায়। পরে শুনেছি সভাস্থলের বাইরে কারা যেন একজন আইনজীবীকে কিলঘুষি মারে। এর পরে আবার ফায়ার সার্ভিসের সামনে বসে আরও দু’জন আইনজীবীকে নাকি মারধর করা হয়েছে। তবে এসব ঘটনার সাথে আমি জড়িত নই। আমার বিরুদ্ধে যে অভিযোগ করা হয়েছে তা ভিত্তিহীন।

এ বিষয়ে জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আব্দুল আউয়াল বলেন, বহিরাগতদের দ্বারা আইনজীবীদের আহতের ঘটনায় আমরা মামলা করার প্রস্তুতি নিয়েছি। অচিরেই বিচারের দ্বারস্থ হবো। যাতে করে বহিরাগতরা আইনজীবীদের ওপর নগ্ন হস্তক্ষেপ না করতে পারে। এ জন্য আমরা বিচার বিভাগের হস্তক্ষেপ কামনা করি।

পিরোজপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আসিকুজ্জামান বলেন, আইনজীবীদের ওপর হামলার ঘটনার খবর পেয়ে সেখানে পুলিশ পাঠানো হয়। তবে উক্ত ঘটনায় এখনও কোন অভিযোগ পাই নি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থ নেয়া হবে।

এদিকে, আইনজীবী সমিতির একপক্ষের মুলতবী সভায় এডভোকেট জালাল উদ্দিনকে আহবায়ক এবং এডভোকেট শহীদুল হক খান পান্নাকে যুগ্ম আহবায়ক করে ৭ সদস্য বিশিষ্ট একটি এডহক কমিটি গঠন করা হয়।

অন্যদিকে, আইনজীবীর অপর একটি অংশের ডাকা তলবী সভায় এডভোকেট আব্দুর রাজ্জাক খান বাদশাকে আহবায়ক এবং এডভোকেট মোঃ সাইদুর রহমান টিটুকে সদস্য সচিব করে ৭ সদস্য বিশিষ্ট জেলা আইনজীবী সমিতির একটি এডহক কমিটি গঠন করা হয়েছে।