ঢাকাThursday , 20 June 2024
  • অন্যান্য

‘আমি ক্ষমাপ্রার্থী, ভুল হয়েছে’

বাংলা ডেস্ক
জুন ৯, ২০২৪ ৬:৪৩ অপরাহ্ণ । ১৯ জন
link Copied

‘অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের নামে গালিগালাজ করায় আমার মাথা গরম হয়ে গিয়েছিল। আমাকে এবং আমার দেহরক্ষীকেও কটূক্তি করা হয়। তবে জনপ্রিতিনিধি হিসাবে এমন কাজ করা আমার ঠিক হয়নি। আমার ভুল হয়েছে।’

একদিকে কঙ্গনা রানাওয়াত, অন্যদিকে সোহম চক্রবর্তী। দুজনেই এই মুহূর্তে চড় কাণ্ডের কারণে আলোচনায় আছেন। একজন থাপ্পড় খেয়েছেন, অপরজন মেরেছেন। যদিও দুটি পৃথক ঘটনা। তবে এবার নিজের কৃতকর্মের জন্য ক্ষমা চেয়ে নিলেন বিধায়ক, অভিনেতা সোহম চক্রবর্তী।

রেস্তোরাঁ মালিককে মারধরের পর অকপটে ক্ষমা চাইলেন টালিউডের এই অভিনেতা। শুক্রবার রাতে কলকাতার নিউ টাউনের এক রেস্তোরাঁয় শুটিং করতে গিয়েছিলেন এই অভিনেতা। সেখানে রেস্তোরাঁ মালিকের সঙ্গে বচসার পর তার গায়ে হাত তোলেন সোহম।

সে ঘটনার একটি ভিডিও প্রকাশ করেছেন রেস্তোরাঁর মালিক। যাতে সোহমকে মারমুখী আচরণ করতে দেখা যায়। তবে শনিবার দুপুরে সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে আলাপের সময় আত্মপক্ষ সমর্থন করে সোহম বলেন, আগে আমার ও আমার প্রযোজনা সংস্থার কর্মীদের ওপর আক্রমণ করা হয়েছিল। অকথ্য গালিগালাজ করা হয়, সেই সময়ে মাথা ঠিক রাখতে পারিনি।

ভিডিওতে শুধু তাকে মারমুখী হতে দেখা গেলেও সোহমে ঘটনার সূত্রপাত সেখানে নয়। এর প্রায় আধাঘণ্টা থেকে ৪৫ মিনিট আগে রেস্তোরাঁ কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বাদানুবাদ শুরু হয় তার এবং তার শুটিং দলের। সোহম জানান, অনুমতি নিয়েই শুটিং করতে গিয়েছিলেন তারা। এমনকি ১০ হাজার রুপিও দেয়া হয়েছিল রেস্তোরাঁ কর্তৃপক্ষকে।

সোহমের প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের অভিযোগ, রেস্তোরাঁর মালিক নাকি শুটিংয়ের কয়েক মুহূর্ত কাউকে ভিডিও করে পাঠাচ্ছিলেন। এছাড়া সোহমের প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের কর্মী এবং তার দেহরক্ষীর ওপরও হামলা করা হয়েছে বলে অভিযোগ তাদের।

জানা যায়, ওই রাতেই থানায় অভিযোগ দায়ের করতে চেয়েছিলেন সোহম। কিন্তু পুলিশ ঘটনা খতিয়ে দেখার আশ্বাস দেয়ায় আর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেননি।

তবে চড় মারার বিষয়টি নিয়ে এখন অনুতপ্ত সোহম, মানুষ হিসেবে আত্মসম্মানে আঘাত লেগেছিল। তাই ঘটনাটা ঘটে গিয়েছে। এখন অনুশোচনা হচ্ছে। সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা, হিন্দুস্তান টাইমস।

এসআর