ঢাকাFriday , 23 February 2024
  • অন্যান্য

শ্রীবরদীতে মামলা গ্রহনের দাবিতে মানববন্ধন

মনিরুজ্জামান মনির
জানুয়ারি ৩১, ২০২৪ ৬:৫৪ অপরাহ্ণ । ২৮ জন
link Copied

শেরপুরের শ্রীবরদীতে অটোরিকশা চালকদের কাছে চাঁদাবাজি ও দুই অটোরিক্সা চালকের ওপর হামলার ঘটনায় মামলা গ্রহনের দাবিতে মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী।

সোমবার দুপুরে পৌর শহরে সেকদি এলাকায় অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে হামলাকারীদের বিরুদ্ধে মামলা গ্রহন, দ্রুত গ্রেফতার, বিচার ও অবৈধভাবে চাঁদা আদায় বন্ধের দাবি জানান এলাকাবাসী। তাদের অভিযোগ, এ ঘটনার দুই সপ্তাহের বেশি সময় পার হলেও মামলা নেয়নি পুলিশ। তবে পুলিশ বলছে তদন্ত শেষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আহত রিকশা চালক আকরাম হোসেন বলেন, আমরা গরীব অসহায় মানুষ। রিক্সা চালিয়ে দিন পার করি। প্রতিদিন আমাদের চাঁদা দিতে হয় বিল্লাল কে। ঘটনার দিন আমার কাছে টাকা ছিলোনা। পরে টাকা দিতে চাইলে বিল্লাল আমাকে মারধর করে। আমি অনেক দিন হাসপাতালে ভর্তি ছিলাম। এ ঘটনায় অভিযোগ দেয়ার ২ সপ্তাহের বেশি পার হয়ে গেলেও পুলিশ এখনো আমাদের মামলা নেয়নি। আমি প্রশাসনের কাছে দ্রুত বিচারের দাবি করছি।

অভিযুক্ত বিল্লাল বলেন, অনেক টাকার বিনিময়ে আমরা স্ট্যান্ড ডেকে নিয়েছি। তাই আমরা চালকদের কাছ থেকে টাকা নেই। চালকের কাছে টাকা চাইলে সে আমাকে প্রথমে আঘাত করে। আমি তাকে আঘাত করিনি। সে গাড়ির ধারালো অংশ দিয়ে ব্যাথা পেয়েছে।

উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার (১১ জানুয়ারি) অটোরিক্সা চালক শাজাহান ও আকরাম হোসেনের সাথে পৌর শহরের বাসস্ট্যান্ডে বিল্লাল হোসেনের সাথে চাঁদা নিয়ে বাকবিতন্ডা হয়। এক পর্যায়ে অটোরিক্সার চাবি কেড়ে নিয়ে তাদের ওপর হামলা করে বিল্লাল। এতে গুরুতর আহত হলে স্থানীয়রা উদ্ধার করে শ্রীবরদী সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে আকরাম হোসেনকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠান। এ ঘটনায় ফুঁসে উঠে এলাকাবাসী। পরে স্থানীয় সংসদ সদস্য এডিএম শহিদুল ইসলাম চাঁদাবাজি বন্ধ ঘোষণা করলের চলছে এই কাজ।

এ ব্যাপারে শ্রীবরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাইয়ুম খান সিদ্দিকী বলেন, আমি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। ঘটনা তদন্ত করে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এছাড়াও চাঁদাবাজির ব্যপারে তিনি বলেন, এখন বন্ধ আছে। আমি নিজে স্ট্যান্ড গুলো পরিদর্শন করে নিষেধ করছি এবং সচেতনতা বৃদ্ধি করছি।