ঢাকাSaturday , 2 March 2024
  • অন্যান্য

কুড়িগ্রামে দুর্যোগপূর্ণ এলাকার স্বেচ্ছাসেবকদর মাঝে উদ্ধার উপকরণ বিতরণ

রফিকুল হক রফিক
ডিসেম্বর ৭, ২০২৩ ৭:২৭ অপরাহ্ণ । ১০৭ জন
link Copied

কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার দূর্যোগপূর্ণ একটি ইউনিয়ন যাত্রাপুর। প্রতি বছর বন্যা, খরা, ও নদী ভাঙনের মতো প্রাকৃতিক দূর্যোগে এই ইউনিয়নের মানুষের স্বপ্ন ভেঙে যায়। সহায় সম্বলহীন হয়ে পড়ে অগনিত মানুষ। বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে এই ইউনিয়নের অসংখ্য প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের নিয়ে কাজ করছে সিডিডি।

বৃহস্পতিবার (৭ ডিসেম্বর) কুড়িগ্রাম শহরের টেরেডেস হোমস (টিডিএইচ) মিলনায়তনে প্রশিক্ষণ শেষে ৩০ জন প্রতিবন্ধী ও অপ্রতিবন্ধী স্বেচ্ছাসেবকদের মাঝে নানা রকম উদ্ধার উপকরণ বিতরণ করেন জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা আব্দুল হাই সরকার।

যাত্রাপুর ইউনিয়নের ৩০ জন স্বেচ্ছাসেবকদের ২ দিন ব্যাপি প্রতিবন্ধিতা অন্তর্ভূক্তিমূলক দূর্যোগ ঝুঁকি হ্রাস বিষয়ক প্রশিক্ষণ পরিচালনা করেন সিডিডির প্রকল্প ব্যবস্থাপক আবু আল তারেক আহমেদ।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ভৌগোলিক অবস্থান জনিত কারনে নদী ভাঙনের মতো দূর্যোগপূর্ণ এই এলাকার মানুষের জীবনে বয়ে আনে কালো অধ্যায়। এই সকল দূর্গত মানুষের কথা বিবেচনায় রেখে পিপিডিসিএইচপিআর প্রজেক্টের আওতায় সেন্টার ফর ডিজঅ্যাবিলিটি ইন ডেভলপমেন্ট (সিডিডি) ২০২১ সাল থেকে ‘প্রতিবন্ধিতা অন্তর্ভূক্তিমূলক দূর্যোগ ঝুঁকি হ্রাস, প্রাথমিক চিকিৎসা, উদ্ধার, পূনর্বাসন ও স্থানান্তর বিষয়ক প্রশিক্ষণের মাধ্যমে যাত্রাপুর ইউনিয়নে দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটি, ওপিডি কেপিকেএস, বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের প্রতিনিধি ও ডব্লিউডিএমসি কমিটির সদস্যদের মধ্যে প্রশিক্ষণ প্রদানের মাধ্যমে তাদের ‘প্রতিবন্ধিতা অন্তর্ভূক্তিমূলক দূর্যোগ ঝুঁকি হ্রাস, বিষয়ক সক্ষমতা অর্জন ও দক্ষ করে তুলছে।

সিডিডির প্রজেক্ট ম্যানেজার আবু আল তারেক আহমেদ বলেন- দূর্যোগ ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা কর্মকান্ডে প্রতিবন্ধি ব্যক্তিরা যেন বাদ পড়ে না যায়। প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের সক্ষমতা অনুযায়ী এই সকল কর্মকান্ডে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের সম্পৃক্ত করতে আহ্বান করেন তিনি।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন সিডিডি কর্মকর্তা আব্দুল মান্নান, প্রভাতী প্রকল্পের ফিল্ড কো-অর্ডিনেটর আরিফুর রহমান ও কেপিকেএস এর নির্বাহী পরিচালক মোঃ আসাদুজ্জামান প্রমুখ ।