ঢাকাWednesday , 24 July 2024
আজকের সর্বশেষ সবখবর

ফুল ফুটুক আর নাইবা ফুটুক আজ বসন্ত ভালোবাসা দিবস

তৌহিদুল ইসলাম সরকার
ফেব্রুয়ারি ১৪, ২০২৪ ৪:১৬ অপরাহ্ণ । ৭০ জন
link Copied

কবি সুভাষ মুখোপাধ্যায়ের কথায় ‘ফুল ফুটুক না ফুটুক, আজ বসন্ত। শান-বাঁধানো ফুটপাতে, পাথরে পা ডুবিয়ে এ কাঠখোট্টা গাছ, কচি কচি পাতায় পাঁজর ফাটিয়ে হাসছে। ফুল ফুটুক না ফুটুক, আজ বসন্ত। সত্যিই আজ পয়লা ফাগুন। ঋতুরাজ বসন্তের প্রথম দিন। শীতের রিক্ততা ভুলিয়ে আবহমান বাংলার প্রকৃতিতে আজ ফাগুনের ছোঁয়া, আগুনরাঙা বসন্তের সুর। গাছে গাছে ফুটবে রক্ত শিমুল-পলাশ, কৃষ্ণচূড়া, রাধাচূড়া, নাগলিঙ্গম।

বাতাস বাতাসে যেন মিষ্টি এক আনন্দের আমেজ। শীতের রুক্ষতাকে বিদায় জানিয়ে ফুলে ফুলে সেজে উঠেছে প্রস্তুত প্রকৃতি। একই দিনে বিশ্ব জুড়ে উদযাপিত হচ্ছে ভালবাসার দিন, বিশ্ব ভালোবাসা দিবস। ভালোবাসা দিবস আর বসন্তের রং যেন মিলেছে একই দিনে। সবার মুখে মুখে দায়ী আজ উচ্চারিত হচ্ছে, বসন্তে রঙ্গিন ভালোবাসার দিন। আজ বসন্ত আজ ভালোবাসার দিন।

প্রকৃতিতে ফাল্গুনের হাওয়া, বাতাসে বসন্তের উন্মাদনা। ঋতুর আজকের স্বাগত জানাতে প্রকৃতি সেজেছে বর্ণিল সাজে। গাছে গাছে পলাশ আর শ্যামলের মেলা। আগুন রাঙ্গা ভালোবাসার রঙ্গে নিজেকে রাঙিয়ে দিচ্ছে, আজ পহেলা ফাল্গুন।

একই দিনে বিশ্বজুড়ে উদযাপিত হচ্ছে ভালোবাসার দিন। ভালোবাসা দিবস আর বসন্তের রঙ যেন মিলেমিশে এক হচ্ছে বসন্তের রঙ যেন মিলেমিশে এক হচ্ছে। আজ ১৪ ফেব্রুয়ারি ফাল্গুনের হাত ধরেই ঋতুরাজ বসন্তের আগমন। সেইসঙ্গে হৃদরাজের হাত ধরে এবারো এলো ভালোবাসার বিশেষ দিনটি। একদিকে বসন্তের রঙ, অন্যদিকে ভালোবাসার রঙের জোয়ার প্রকৃতি একাকার আজ।

ফাল্গুনের আগুনে মন রাঙিয়ে বাঙালি তার দীপ্ত চেতনায় উজ্জীবিত হবে আজ। বাসন্তী রঙের শাড়ি কপালে টিপ হাতে চুড়ি গায়ে নুপুর খোঁপায় ফুল অথবা রিং জড়িয়ে আজ বেরিয়ে পড়বেন তরুণীর দল। প্রকৃতির সঙ্গে নতুন সাজবেন তারাও। তাদের উচ্ছ্বাস মনে করিয়ে দেয় কোভিদ কবিতায় লাইন, ফুল ফুটুক আর নাই ফুটুক, আজ বসন্ত।

বেশ কয়েক বছর ধরে ঋতুরাজের হাত ধরে আসছে ভালবাসার দিন। যদিও ভালোবাসা ক্ষণিকের নয়, চিরন্তন। ভালোবাসা শুধু প্রেমিক প্রেমিকার নয়, শুধু স্বামী স্ত্রী নয়, হ্যাঁ ভালোবাসা বয়সের প্রেমে বাঁধা নয়, এটা প্রসারিত হয় বন্ধুবান্ধব পরিচিতজনসহ সবার মাঝে। ইংরেজি বর্ষপঞ্জির ১৪ই ফেব্রুয়ারি দিনটি ভালোবাসা দিবস হিসেবে পরিচিত সারা বিশ্বে। বাংলাদেশেও দিবসটি ঘিরে ব্যাপক আগ্রহ রয়েছে তরুণ প্রজননের মধ্যে।