ঢাকাSunday , 16 June 2024
  • অন্যান্য
আজকের সর্বশেষ সবখবর

কুমিল্লা ও ময়মনসিংহ সিটিতে ইভিএমে ভোট ৯ মার্চ

নিজস্ব প্রতিবেদক
জানুয়ারি ২২, ২০২৪ ৪:২৭ অপরাহ্ণ । ৭৯ জন
link Copied

আগামী ৯ই মার্চ ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন অনুষ্টিত হবে। একই দিনে কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনে মেয়র পদেও উপ-নির্বাচন হবে বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনার আনিছুর রহমান।

সোমবার (২২ জানুয়ারি) আগারগাঁওয়ের নির্বাচন ভবনে নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের এ কথা জানান তিনি।

ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) মাধ্যমে এই ভোট অনুষ্ঠিত হবে। সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত টানা ভোটগ্রহণ করা হবে।

নির্বাচন কমিশনার আনিছুর রহমান বলেন, ঈদের আগে উপজেলা নির্বাচন হবার সম্ভাবনা নেই। ৪ থেকে ৫ ধাপে হবে এই উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের ভোট অনুষ্ঠিত হবে।

এদিকে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) অতিরিক্ত সচিব অশোক কুমার দেবনাথ বলেছেন, ‘আগামী ৯ মার্চ ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশনের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ওইদিন ময়মনসিংহ সিটি নির্বাচনের পাশাপাশি বেশ কয়েকটি পৌরসভার নির্বাচনও অনুষ্ঠিত হবে। তার মধ্যে রয়েছে বরগুনা জেলার আমতলী পৌরসভা। এছাড়া কাঁঠালিয়া পৌরসভার নির্বাচনও এদিন অনুষ্ঠিত হবে।’

ময়মনসিংহ সদর উপজেলার ১৩টি ইউনিয়নের মধ্যে বয়ড়া ও আকুয়া ইউনিয়নের পুরোটা এবং খাগডহর, চর ঈশ্বরদিয়া, দাপুনিয়া, ভাবখালী, সিরতা ও চরনিলক্ষীয়া ইউনিয়নের আংশিক এলাকাকে অন্তর্ভূক্ত করে এই সিটি করপোরেশনের এলাকা নির্ধারণ করা হয়।

২০১৯ সালের ৫ মে প্রথমবারের মতো ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশন নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ময়মনসিংহ সিটিতে ৩৩টি সাধারণ ওয়ার্ডে ও ১১টি সংরক্ষিত ওয়ার্ড রয়েছে। এই সিটি করপোরেশনের আয়তন ৯১.৩১৫ বর্গ কিলোমিটার।

অন্যদিকে কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরফানুল হক রিফাতের মৃত্যুর পর থেকেই অভিভাবকহীন কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন। নির্বাচন কমিশনের বিধিমতে,সিটি কর্পোরেশনের মেয়র পদ শূন্য হইবার পর নব্বই দিনের মধ্যে নির্বাচন করতে হবে।

কুমিল্লা সিটি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে মূলত আওয়ামী লীগ একাধিক নেতা ও বহিষ্কৃত বিএনপির দুই নেতাকে কেন্দ্র করেই আলোচনা জোরালো হচ্ছে। এ ছাড়া মেয়র পদে নির্বাচন করার সামর্থ্য বা জনপ্রিয় কোনো নেতা বা প্রার্থী অন্য কোনো দলে নেই। শুধু অংশগ্রহণের জন্য যদি কেউ নির্বাচন করেন, তা করতে পারেন। তবে এ দুদলের বাইরে গিয়ে নির্বাচনী বৈতরণী পার হওয়ার সামর্থ্য এখনো কারও হয়নি বলে মনে করেন নগরীর ভোটাররা।

নগরবাসী মনে করে, সর্বজন গ্রহণযোগ্য প্রার্থী মনোনয়ন দিতে না পারলে কুমিল্লায় মেয়র পদে বিজয় ছিনিয়ে আনা এবার বেশ কঠিন হবে। এখানে জয়লাভের ক্ষেত্রে সব সময়ই কাজ করে প্রার্থীর ব্যক্তিগত ক্লিন ইমেজ। ভোটাররাও সব সময় মনে করেন, এমন ক্লিন ইমেজের নেতা মেয়র হয়ে আসুন, যার দরজা জনগণের জন্য সব সময় থাকবে খোলা।

আসন্ন উপ- নির্বাচনে নির্বাচনে কুসিক মেয়র পদে আওয়ামীলীগ থেকে কে মনোনয়ন পাচ্ছেন, স্বতন্ত্র হিসেবে কারা মেয়র পদে লড়তে পারেন, সেসব নিয়ে চলছে নানা জল্পনা-কল্পনা ও মেরুকরণ।

এখন পর্যন্ত আওয়ামী লীগের স্থানীয় সংসদ আ.ক.ম বাহাউদ্দিন বাহারের কন্যা তাহসান বাহার সূচি, কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এডভোকেট জহিরুল ইসলাম সেলিম, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আতিক উল্ল্যাহ খোকন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ নুরুর রহমান, ভিক্টোরিয়া কলেজ ছাত্র সংসদের ভিপি নূর মোহাম্মদ তানিম, দক্ষিণ জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সাবেক সভাপতি কবির ইসলাম শিকদার,আনিসুর রহমান মিঠুসহ আরো বেশ কয়েকজন নেতা দলীয় মনোনয়ন পেতে কেন্দ্রে তৎপরতা চালাচ্ছেন।

এদিকে সাবেক মেয়র মনিরুল হক সাক্কু ও বিএনপি থেকে বহিষ্কৃত আরেক নেতা নিজামুদ্দিন কাউসারের অনুসারীরা নির্বাচনে ইঙ্গিত দিয়ে প্রচার -প্রচারণা শুরু করেছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে । নির্বাচন মুখী নানা তৎপরতায় তারা ভোটে অংশগ্রহণের ইঙ্গিত দিচ্ছেন।

এসআর